Homeশিক্ষাঙ্গনঢামেক চিকিৎসককে মারধর, ঢাবি শিক্ষার্থীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

ঢামেক চিকিৎসককে মারধর, ঢাবি শিক্ষার্থীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসক ডা. মো. সাজ্জাদ হোসেনের উপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কতিপয় বিপদগামী শিক্ষার্থীর বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদ (ইচিপ)।

বুধবার (১০আগস্ট) সকাল ১১টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মানববন্ধন কর্মসূচি শুরু করেন ইচিপ সদস্যবৃন্দ। দুপুর দেড়টায় কর্মসূচি শেষ করেন। এর আগে সকাল ১০টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মো. আখতারুজ্জামানের সাথে আলোচনা করেন তারা। এসময় ঢাবি ভিসি হামলাকারীদের চিহ্নিত করে বিচারের আওতায় আনার আশ্বাস দেন বলে জানিয়েছেন ইচিপ।

মানববন্ধনে ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি ডা. মহিউদ্দিন জিলানী বলেন, শুধু ডা. সাজ্জাদ নয় অনেকেরই সাথে এরকম ঘটনা ঘটে। আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির সাথে দেখা করেছি। তিনি এই ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নিবেন বলে আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন। আমরা চাই আজকের মধ্যেই দোষীদের শনাক্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক। তা না হলে আগামীকাল থেকে আমরা কর্মবিরতি পালন করবো।

তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতি আমাদের কোন আক্ষেপ নেই। তারা আমাদের ভাই। কিছু ছাত্রের জন্য পুরো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বদনাম। আমরা এইসব বিপথগামী শিক্ষার্থীর বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করছি।

ইপিচ সদস্য জাকিউল ইসলাম ফুয়াদ বলেন, আমরা ইতোমধ্যে মিটিং করেছি, আমাদের ডিরেক্টর, প্রিন্সিপাল সহ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি’র সাথে আলোচনা করেছি। আমরা বলেছি, আপনারা সিসিটিভি ফুটেজ দেখেন, দোষীদের চিহ্নিত করে বিচারের আওতায় আনেন। তা না হলে ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদ তাদের পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হবে।

উল্লেখ্য, গত ৮ আগস্ট রাতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কতিপয় বিপদগামী শিক্ষার্থীর হামলার শিকার হন ঢামেকের ইন্টার্ন চিকিৎসক মো. সাজ্জাদ হোসেন। তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। ঘটনার বর্ণনায় তিনি বলেন, সেদিন রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লোগো সম্বলিত টি-শার্ট পরিহিত ৮-১০ জন যুবক আমাকে জিজ্ঞেস করে পরিচয় কি। নিজের পরিচয় জানালে তারা আমার আইডি কার্ড দেখতে চায়। আইডি কার্ড মেডিকেলে রেখে আসারা কথা জানালে তারা আমাকে বেদম মারধর করে। এ ঘটনায় শাহবাগ থানায় জিডি করেছেন বলেও জানান সাজ্জাদ।

RELATED ARTICLES

Most Popular