Homeরাজনীতিঅবৈধভাবে ক্ষমতায় থাকতে সরকার মামলাকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে : গণঅধিকার

অবৈধভাবে ক্ষমতায় থাকতে সরকার মামলাকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে : গণঅধিকার

জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধি, ভোলায় স্বেচ্ছাসেবকদলের নেতা আব্দুর রহিম ও  ছাত্রদল নেতা নূরে আলম হত্যার প্রতিবাদে গত ২২ আগষ্ট জামালপুরের মাদারগঞ্জে বিএনপির নেতা-কর্মীদের সমাবেশে আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীরা হামলা করে ও ২৩ আগষ্ট একই বিষয়ে বিএনপির নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতারা মামলা করেন।উদ্দেশ্যেপ্রণোদিত সেই মামলায় গণঅধিকার পরিষদ জামালপুর জেলার যুগ্ম আহ্বায়ক আল আমিনকে আসামি করে। একইভাবে ২৩ আগষ্ট নোয়াখালী জেলায় বিএনপির সমাবেশে কেন্দ্র করে পুলিশ হামলা করে ও পরের দিন ২৪ আগষ্ট বিএনপির নেতা-কর্মীদের নামে মামলা করে। সেই মামলায়ও নোয়াখালী জেলা যুব অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক জাকের হোসেনকে আসামি করে।

কোন ধরণের সম্পৃক্ততা না থাকার পরও দেশের বিভিন্ন স্থানে এভাবে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে গণঅধিকার পরিষদ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের হয়রানি করা হচ্ছে। যা সম্পূর্ণ অন্যায়, অমানবিক ও গর্হিত কাজ।এভাবে বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের দমনে সরকার মামলাকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে।নেতা-কর্মীদেরকে মিথ্যা মামলায় জড়ানোর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে গণঅধিকার পরিষদ এর আহ্বায়ক ড.রেজা কিবরিয়া ও সদস্য সচিব নুরুলহক নুর।

এক যৌথ বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন,”সরকারের পায়ের নিচে মাটি সরে যাওয়ার সরকার বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের উপর হামলা-মামলা করে ভীত-সন্ত্রস্ত পরিবেশ সৃষ্টি করে  অবৈধভাবে ক্ষমতায় থাকতে চায়।যে কারণে,সারা দেশে বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের উপর বর্বর হামলা ও হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলা দিচ্ছে।
পুলিশসহ প্রশাসনকে সরকারের বেআইনী আদেশ পালন থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়ে গণঅধিকার পরিষদের নেতা-কর্মীদেরকে উদ্দেশ্যেপ্রণোদিতভাবে জড়ানো হয়রানিমূলক মামলা থেকে অব্যহতি দেয়ার আহ্বান জানান।

RELATED ARTICLES

Most Popular