Homeশিক্ষাঙ্গনছাত্রীদের যেকোনো হলে প্রবেশের সুযোগের দাবিতে ছাত্রলীগের স্মারকলিপি

ছাত্রীদের যেকোনো হলে প্রবেশের সুযোগের দাবিতে ছাত্রলীগের স্মারকলিপি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের ৫টি হলে অনাবাসিক এবং আবাসিক শিক্ষার্থীদের আইডি কার্ড দেখিয়ে যেকোনো হলে প্রবেশের সুযোগ দেওয়া, হলে প্রবেশের সময়সীমা বৃদ্ধি করাসহ ৮ দফা দাবিতে উপাচার্যকে স্বারকলিপি দিয়েছে ছাত্রলীগের নেত্রীরা।

শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের নিকট স্মারকলিপি দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হলের ছাত্রলীগের নেত্রীরা।

তাদের অন্য দাবিগুলো হলো- হলের খাবারের গুনগত মান বৃদ্ধি করা এবং পর্যাপ্ত বিশুদ্ধ পানির ফিল্টার স্থাপন করা; শিক্ষার্থীদের সাথে হল প্রশাসনের সদাচরণ নিশ্চিত এবং হলের কর্মচারীদের শিক্ষার্থীদের সাথে হয়রানিমূলক আচরণ বন্ধ করা; হলে কোনো শিক্ষার্থী অসুস্থ হলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া; হলের গেস্টরুম সকাল ৮ থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা রাখা; দূরবর্তী হলগুলোর যাতায়াতের জন্য বাসের ট্রিপ এবং সময়সীমা বৃদ্ধি করা এবং ক্যাম্পাসে যাতায়াতের জন্য সঠিক রিকশা ভাড়া নির্ধারণ করা।

উপাচার্যকে দেওয়া স্বারকলিপিতে বলা হয়- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে ৫টি মেয়েদের হলেই প্রতিনিয়ত বিভিন্ন অসঙ্গতি এবং অনিয়ম লক্ষ্য করা যাচ্ছে। যার ফলশ্রুতিতে শিক্ষার্থীরা নানাবিধ হয়রানির শিকার হচ্ছে, এমনকি শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যঝুঁকি দেখা যাচ্ছে। দীর্ঘদিন ধরে লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে হলের ক্যান্টিনে উচ্চদামে নিকৃষ্ট মানের খাবার পরিবেশন, চাহিদার তুলনায় বিশুদ্ধ পানির ফিল্টারের অপ্রতুলতা, হলের শিক্ষার্থীদের সাথে বিভিন্ন সময় অশোভন আচরণ করা, মেয়েদের হলগুলোতে প্রবেশের জন্য নানাবিধ নিষেধাজ্ঞা রয়েছে যা কার্যত শিক্ষার্থীদের তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত করে এবং বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করে। আমরা এইসব অসঙ্গতি এবং অনিয়মের অবসান চাই। শিক্ষার্থীদের স্বার্থ, অধিকার এবং সমস্যার কথা বিবেচনা করে দাবিগুলো বাস্তবায়ন করতে আপনি অনতিবিলম্বে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন বলে প্রত্যাশা করছি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, শামসুন নাহার হল ছাত্রলীগের সভাপতি খাদিজা আখতার ঊর্মি, সাধারণ সম্পাদক  নুসরাত রুবাইয়াত নীলা, রোকেয়া হল ছাত্রলীগের সভাপতি আতিকা বিনতে হোসেন, সাধারণ সম্পাদক অন্তরা দাস পৃথা, বঙ্গমাতা হল ছাত্রলীগের সভাপতি
কোহিনূর আক্তার রাখী, সাধারণ সম্পাদক সানজিনা ইয়াসমিন, বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হল ছাত্রলীগের সভাপতি রাজিয়া সুলতানা কথা, সাধারণ সম্পাদক
জান্নাতুল হাওয়া আঁখি, কবি সুফিয়া কামাল হল ছাত্রলীগের সভাপতি পূজা কর্মকার, সাধারণ সম্পাদক  রিমা আার ডলি।

RELATED ARTICLES

Most Popular